মেনু নির্বাচন করুন

ছবি
শিরোনাম
ঐতিহাসিক কালারমার মসজিদ
বিস্তারিত

ঐতিহাসিক কালারমার মসজিদ

ভূমিকা:

  কক্সবাজার জেলার কুতুবদিয়া উপজেলার ১নং উত্তর ধূরুং ইউনিয়নের কালের সাক্ষী বহনকারী স্থান হল ঐতিহাসিক কালারমার মসজিদ।১নং উত্তর ধূরুং ইউনিয়নে অবস্থিত এই মসজিদটি শুধু কুতুবদিয়ার জন্য নয় সারা বাংলাদেশের জন্য একটা বিথ্যাত মসজিদ।এই মসজিদের রহিয়াছে নানা গুনগান,রয়েছে নানা ইতিহাস।নিম্নে এই সম্পর্কে আলোকপাত করা হল।

 নাম করন: কথিত আছে আজ থেকে প্রায় ৩৫০ বছর আগে যখন কুতুবদিয়া উপজেলায় অতি কমসংখ্যক জনসংখ্যার বাস তখন অত্র ইউনিয়নে বাস করত একজন মহিলা। মহিলার নাম জানা যায়নি।এবং তার স্বামীর নাম ও জানা যায়নি।তবে ঐ মহিলার একজন পুত্র ছিল ।তার নাম কালা।সেই মহিলা একদির তার স্বামীর কাছে আবদার করে তার মরন পর একটা স্থৃতি রেখে যাওয়ার জন্য ।তখন তার স্বামী ছোট কুটির অথাৎ গোল পাতা  ছাউনি দ্বারা একটি মসজিদ ঘর তৈরী করে দেয়।পরে তার পুত্রের নাম অনুসারে এটাকে কালারমার মসজিদ নাম করা হয়।

 স্থাপিত কাল: আজ থেকে প্রায় ৩৫০ বছর আগে এটা স্থাপিত হয়।

নির্মান ও সংস্করন কাল:

  ১ম নির্মান: কালারমার স্বামী

  ২য় সংস্কর: তৎকালীন জমিদার জনাব মরহুম মনু সিকদার আজ থেকে প্রায় ৭০ বছর আগে মসজিদটির ভেতরের অংশ  পাকা করেন।

  ৩য় সংস্করন: মরহুম মনু সিকদার ১ম পুত্র মরহুম শেখ রফিক আহমদ চৌধূরী এর বাইরের অংশ অথাৎ বারান্দা নির্মান করে মসজিদটিকে সুন্দর করে তূলেন।বর্তমানে মসজিদের পরিচালক হিসেবে রহিয়াছেন আ.শ.ম শাহরিয়ার চৌধূরী।

         অতীত বতর্মানে ও মসজিদের খতিব,ইমাম,মুয়াজ্বিম এবং খাদেমের দায়িত্ব প্রাপ্ত ব্যাক্তিগণ

ক্রম নং

 নাম

পদবী

০১

মরহুম আশরাফ আলী মিয়াজ্বী

ইমাম ও মোয়াজ্বিম

০২ 

মরহুম আব্দু রহিম রেজভী

খতিব

০৩

মরহুম কালু মিয়াজ্বী

মোয়াজ্বিম

০৪

মরহুম মোজাহেরুল ইসলাম

খতিব ও ইমাম

০৫

মরহুম মাহমুদ উল্লাহ ফারুকি

খতিব

০৬

মুহাম্মদ আবু মুছা

খতিব

০৬

মুহাম্মদ হেলাল উদ্দিন

মুয়াজ্বিম

০৭

মুহাম্মদ উমর ফারুখ

মুয়াজ্বিম ও ইমাম

০৮

ছিদ্দিক আহমদ

খাদেম

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

মসজিদের ধরন:

সম্র্পূর্ন পাকা।১ তলা বিশিষ্ট।ভিতরে ঐতিহাসিক কারুকাচ।যা অতি মুগ্ধকর।পশ্চিমের দেওয়ালে সূরা ইয়াছিন সুন্দর হস্তে কারুকাচ কৃত।মসজিদের সামনে বড় পুকুর ঘেরাও করা ।

অলৌকিক দৃশ্য:

এই মসজিদের নানা অলৌকিক দৃশ্য রহিয়াছে।যাহা প্রমানিত।

যেমন: ১/ বিপদে পড়লে মান্নত করলে উদ্ধার পাওয়া য়ায়।।

     ২/ কোন কিছূ পাওয়ার নিয়ত কর সহ যে কোন বিষয়ে মান্নত করলে তা পূরন হয়।